মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সমাজসেবা অফিসের কার্যাবলী

 

ক্রঃ নং

কার্যক্রম

সেবা

সেবা গ্রহীতা

সেবা প্রাপ্তির সময়সীমা

 

 

আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন সেবা (সুদমুক্ত ঋণ)

পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রম

¡পল্লী অঞ্চলের দরিদ্র জনগণকে সংগঠিত করে উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় আনয়ন;

¡সচেতনতা বৃদ্ধি, উদ্ধুদ্ধকরণ এবং দক্ষতা উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ প্রদান;

¡৫ হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদান;

¡লক্ষ্যভুক্ত ব্যক্তিদের নিজস্ব পুঁজি গঠনের জন্য সঞ্চয় বৃদ্ধি।

নির্বাচিত গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা, যিনি:-

¡আর্থ সামাজিক তালিকাভুক্ত পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের কর্মদলের সদস্য/ সদস্যা;

¡সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ ও অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ’ক’ ও ’খ’ শ্রেণীভুক্ত দরিদ্রতম ব্যক্তি অর্থাৎ যার মাথাপিছুবার্ষিক পারিবারিক আয় সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত;

¡সুদমুক্ত ঋণ ব্যতীত অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ’গ’ শ্রেণীভুক্ত ব্যক্তি অর্থাৎ যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় ২৫ হাজার টাকার উর্ধে।

নির্ধারিত ফরমে যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে আবেদনের পর:-

¡১ম বার ঋণ(বিনিয়োগ) গ্রহণের জন্য আবেদনের পর ১ মাসের মধ্যে;

¡২য়/৩য় পর্যায়ের ঋণ (পুনঃবিনিয়োগ) গ্রহণ এর জন্য আবেদনের ২০ দিনের মধ্যে।

 

পল্লী মাতৃকেন্দ্র কার্যক্রম

¡পল্লী অঞ্চলের দরিদ্র নারীদের সংগঠিত করে উন্নয়নের মূল স্রোতধারায় আনয়ন;

¡পরিকল্পিত পরিবার তৈরিতে সহায়তা;

¡জাতীয় জনসংখ্যা কার্যক্রম বাস্তবায়ন;

¡সচেতনতা বৃদ্ধি, উদ্ধুদ্ধকরণ এবং দক্ষতা উন্নয়ন;

¡৩ হাজার থেকে ৫ হাজার টাকা পর্যন্ত সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রদান;

¡লক্ষ্যভুক্ত নারীদের সংগঠিত করে সঞ্চয় বৃদ্ধির মাধ্যমে পুঁজি গঠন।

নির্বাচিত গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা, যিনি:-

¡আর্থ সামাজিক জরিপের মাধ্যমে সমাজসেবা অধিদফতরে তালিকাভুক্ত পল্লী মাতৃকেন্দ্রের সদস্য এবং

¡সুদমুক্ত ঋণ ও অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ’ক’ ও ’খ’ শ্রেণীভুক্ত দরিদ্রতম নারী যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত;

¡সুদমুক্ত ঋণ ব্যতীত অন্যান্য সেবা প্রাপ্তির জন্য ’গ’ শ্রেণীভুক্ত নারী যার মাথাপিছু বার্ষিক পারিবারিক আয় ২৫ হাজার টাকার ঊর্ধে।

নির্ধারিত ফরমে যথাযথ পদ্ধতি অনুসরণ করে আবেদনের পর:-

¡১ম বার ঋণ (বিনিয়োগ) গ্রহণের জন্য আবেদরেন পর ১মাসের মধ্যে;

¡২য়/৩য় পর্যায়ের ঋন (পুনঃ বিনিয়োগ) গ্রহণ এর জন্য আবেদনের পর ২০ দিনের মধ্যে।

 

৩.

এসিডদগ্ধ মহিলা ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের পুনর্বাসন কার্যক্রম

¡৫ হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকা ক্ষুদ্রঋণপ্রদান

এসিদগ্ধ মহিলা ও শারীরিক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যাদের বাৎসরিক আয় ২০,০০০ (বিশ হাজার) টাকার নিচে।

¡১ম বার ঋণ (বিনিয়োগ) গ্রহনের জন্য আবেদনের পর ১ মাসের মধ্যে;

¡২য়/৩য় পর্যায়ের ঋণ (পুনঃবিনিয়োগ) গ্রহণ এর জন্য আবেদনের পর ২০ দিনের মধ্যে

 

 

সামাজিক নিরাপত্তা সেবা

৪.

বয়স্ক ভাতা কার্যক্রম

¡সরকার কর্তৃক সামাজিক নিরাপত্তার জন্য নির্ধারিত হারে বয়স্ক ভাতাপ্রদান। নির্বাচিত বয়স্ক ব্যক্তিদের জনপ্রতি মাসিক ৩০০টাকা হারে ভাতা প্রদান করা হচ্ছে।

¡উপজেলার ৬৫ বছর বা তদুর্ধ বয়সী হতদরিদ্র মহিলা বা পুরুষ, যার বার্ষিক গড় আয় অনুর্ধ ৩০০০ (তিন হাজার) টাকা;

¡শারীরিক ভাবে অক্ষম ও কর্মক্ষমতাহীন প্রবীণ পুরুষ ও মহিলাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া হয়;

¡তালাকপ্রাপ্ত, স্বামী পরিত্যক্ত, বিপতনীক, নিঃসন্তান, পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন প্রবীণ পুরুষ ও নারীদের অগ্রাধিকার দেয়া হয়;

¡যে সকল প্রবীণ ব্যক্তির আয়কৃত অর্থের সম্পুর্ন অর্থখাদ্য বাবদ ব্যয় হয় এবং স্বাস্থ্য, চিকিৎসা, বাসস্থান ও অন্যান্য খাতে ব্যয় করার জন্য কোন অর্থ অবশিষ্ট থাকে না;

¡ভুমিহীন বয়স্কব্যক্তি।

 

৫.

অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা কার্যক্রম

¡সরকার কর্তৃক সামাজিক নিরাপত্তার জন্য নির্ধারিত হারে অসচ্ছল প্রতিবন্ধী ভাতা প্রদান। নির্বাচিত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জনপ্রতি মাসিক ৩০০টাকা হারে প্রদান করা হচ্ছে ।

¡৬ বছরে ঊর্ধে সকল ধরণের প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যিনি বয়স্কভাতা কিংবা সরকার কর্তৃক অন্য কোন ভাতা পান না; যিনি চাকুরীজীবী কিংবা পেনশনভোগী নন;

¡প্রতিবন্ধী ব্যক্তি যাদের বার্ষিক মাথাপিছু পারিবারিক আয় ২৪০০০ (চবিবশ হাজার) টাকার কম

 

৬.

প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য শিক্ষা উপবৃত্তি

¡প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের ৪টি স্তরে বিভক্ত করে নিম্নরূপ হারে উপবৃত্তি প্রদান:-

¡প্রাথমিক স্তর (১ম-৫ম শ্রেণী): জনপ্রতি মাসিক ৩০০ টাকা;

¡মাধ্যমিক স্তর (৬ষ্ঠ --১০ম শ্রেণী): জনপ্রতি মাসিক ৪৫০ টাকা;

¡উচ্চ মাধ্যমিক স্তর (একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণী): জনপতি মাসিক ৬০০ টাকা;

¡উচ্চতর স্তর (স্নাতক ও স্নাতকোত্তর): জনপ্রতি মাসিক ১,০০০ টাকা;

সরকার কর্তৃক অনুমোদিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়নরত ৫ বছর বয়সের ঊর্ধে প্রতিবন্ধী ছাত্র-ছাত্রী, যাদের বার্ষিক মাথাপিছু পারিবারিক আয় ৩৬,০০০ (ছত্রিশ হাজার) টাকার নিচে।

 

৭.

মুক্তিযোদ্ধা সম্মানী ভাতা

¡সরকার কর্তৃক মাসিক জনপ্রতি২০০০টাকা হারে সন্মানী ভাতা প্রদান।

¡মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী যার বার্ষিক আয় ১২,০০০ টাকার উর্ধে নয়;

¡মুক্তিযোদ্ধা বলতে জাতীয়ভাবে প্রকাশিত ৪টি তালিকার কমপক্ষে দুটি তালিকায় অন্তর্ভুক্ত, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ এবং বাংলাদেশ রাইফেলস হতে প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা তালিকায় যাদের নাম অন্তর্ভুক্ত আছে বা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্তৃক প্রকাশিত গেজেট বা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্তৃক প্রকাশিত গেজেট বা মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্তৃক মুক্তিযোদ্ধা সনদপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা।

¡এক্ষেত্রে কর্মক্ষম নন বা আংশিক কর্মক্ষম/ ভুমিহীন/ কর্মহীন/সহায় সমবলহীন মুক্তিযোদ্ধাগণ অগ্রাধিকার পাবেন;

৮.

বিধবা ও স্বামী পরিত্যাক্তা দুঃস্থ মহিলা ভাতা

¡সরকার কর্তৃক সামাজিক নিরাপত্তার জন্য নির্ধারিত হারে বিধবা ও স্বামী পরিত্যাক্তা দুঃস্থ মহিলা ভাতা  প্রদান। নির্বাচিত বিধবা ও স্বামী পরিত্যাক্তা দুঃস্থ মহিলা ভাতাগ্রহীতাদের জনপ্রতি মাসিক ৩০০টাকা হারে ভাতা প্রদান করা হচ্ছে।

¡দেশের সকল উপজেলার বিধবা ও স্বামী পরিত্যাক্তা দুঃস্থ মহিলাযার বার্ষিক গড় আয় অনুর্ধ ৩০০০ (তিন হাজার) টাকা;

¡তালাকপ্রাপ্ত, স্বামী পরিত্যক্ত

 

৯.

স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণ সংস্থাসমূহ নিবন্ধন তত্ত্বাবধান

¡স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণমূলক সংগঠনের নামকরণের চাড়পত্র প্রদান;

¡১৯৬১ সালের স্বেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণ সংস্থাসমূহ (নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রন) অধ্যাদেশের ২(চ) ধারায় বর্ণিত সেবামূলক কার্যক্রমে আগ্রহী সংস্থা/প্রতিষ্ঠান/সংগঠন/বেসরকারি এতিমখানা/ক্লাব নিবন্ধন;

¡নিবন্ধন প্রাপ্ত সংগঠনের গঠনতন্ত্র বা সংশোধিত গঠনতন্ত্র অনুমোদন, সাধারণ ও কার্যকরী পরিষদ অনুমোদন ;

¡নিবন্ধনপ্রাপ্ত সংগঠনের কার্যএলাকা একাধিক জেলায় সম্প্রারণের অনুমোদন;

¡নিবন্ধন প্রাপ্ত সংগঠনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ নিস্পত্তির ব্যবস্থা গ্রহণ;

¡নিবন্ধনপ্রাপ্ত সংগঠন সমূহের কার্যক্রম তদারকি।

সেচ্ছাসেবী সমাজকল্যাণমূলক কার্যক্রমে আগ্রহী সংগঠন, প্রতিষ্ঠান, ক্লাব, সংস্থা, সমিতি ইত্যাদি।

 

১০.

সমাজকল্যাণ পরিষদের মাধ্যমে নিবন্ধনপ্রাপ্ত  সংস্থাসমূহে অনুদান প্রদানে সহায়তা

¡সমাজসেবা অধিদফতর হতে ঘোষিত জাতীয় পর্যায়ের প্রতিষ্ঠানসমূহে অনুদানপ্রদানবার্ষিক ৫০ হাজার হতে সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা ;

¡শহর সমাজ উন্নয়ন প্রকল্প সমন্বয় পরিষদে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ টাকা অনুদান

¡রোগীকল্যাণ সমিতি সমূহের জন্য ৫০ হাজার হতে ২ লক্ষ টাকা অনুদান;

¡অপরাধী সংশোধন ও পুনর্বাসন সমিতি সমূহের জন্য ৫০ হাজার হতে ১ লক্ষ টাকা অনুদান

¡নিবন্ধনপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসমূহের আয়বর্ধক কর্মসূচীর জন্য অনুদান

¡নিবন্ধনপ্রাপ্ত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসমূহের জন্য ৫ হাজার হতে ২০ হাজার টাক সাধারণ অনুদান এবং আয়বর্ধক কর্মসূচির জন্য সর্বোচ্চ ১ লক্ষ টাকা অনুদান;

¡প্রতিষ্ঠান/সংগঠন/সংস্থা/দু:স্থব্যক্তিদের বিশেষ সর্বোচ্চ ২৫ হাজার অনুদান;

¡আকস্মিক দুর্ঘটনা বা প্রাকৃতিক দূর্যোগের জন্য জন প্রতি সর্বোচ্চ ১ হাজার টাকা।

সমাজকল্যাণ পরিষদ থেকে নিম্নলিখিত প্রতিষ্ঠান/ সংগঠনকে অনুদান প্রদান করা হয়:-

¡জাতীয় পর্যায়ের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

¡শহর সমাজ উন্নয়ন প্রকল্প সমন্বয় পরিষদ

¡রোগী কল্যাণ সমিতি

¡অপরাধী সংশোধন ও পুনর্বাসন সমিতি

¡নিবণধন প্রাপ্ত সাধারণ স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন

¡বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান

¡দরিদ্র/ ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি

 

১১.

স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা/প্রতিষ্ঠান সমূহের সাথে উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা

¡অসহায় দুস্থ রোগীদের অধিকার সুরক্ষা, কল্যাণ ও পুনর্বাসনে সহায়তা প্রদান;

¡যে সমস্ত প্রতিষ্ঠান সমাজের অনগ্রসর পশ্চাৎপদ অবহেলিত, এতিম, প্রতিবন্ধী, দুস্থ, সমস্যাগ্রস্ত ব্যক্তিদের সেবা দিয়ে থাকে তাদের প্রকল্প প্রণয়নে সহায়তা প্রদান:

¡অনুরূপ প্রকল্প অনুমোদনের প্রত্যাশী সংস্থাকে যথাযথ সহায়তা প্রদান;

¡অনুমোদিত প্রকল্পের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালে মাধ্যমে ৩০% রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান;

¡বিনামূল্যে দুস্থ, এতিম, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদেরপ্রত্যাশী সংস্থার মাধ্যমে প্রতিপালন ও পুনর্বাসন।

¡বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান যারা সমাজসেবা মূলক কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত;

¡স্বাস্থাসেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিশেষ করে ডায়াবেটিক, হার্ট, চক্ষু, প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান;

¡অপরাধপ্রবণ কিশোর-কিশোরী এবং এতিম শিশুদের লালন পালনকারী স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান;

¡বেসরকারি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান এর মাধ্যমে দরিদ্র সমস্যাগ্রস্থ, প্রতিবন্ধী, ব্যাক্তি/শিশু এবং রোগী।